বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ক্ষমতার জন্য বিএনপি দেশের স্বাধীনতা বিকিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করে না: ওবায়দুল কাদের জনগণকে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবার আহবান প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর অত্যন্ত ফলপ্রসূ ॥ বিএনপির রাজনীতি রক্ত-লাশের : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী শত বছর পর বরিশাল জেনারেল হাসপাতাল ২৫০ শয্যায় উন্নীত হচ্ছে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সকল সেবা এক জায়গা থেকে নিশ্চিত করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী জনগণের ভোগান্তি লাঘবে সম্পূর্ণ ভূমি ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজড করা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী দেশব্যাপী কোভিড-১৯ এর ২য় ডোজ গণটিকা দান কর্মসূচি শুরু আগামী ১২ সেপ্টেম্বর শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে : শিক্ষামন্ত্রী ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য আরও ২শ’ কোটি টাকা প্রণোদনা ঋণ দেয়া হচ্ছে পঞ্জশিরে জোর লড়াই ॥ সরকার গঠনের প্রস্তুত তালেবান
ক্ষমতার জন্য বিএনপি দেশের স্বাধীনতা বিকিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করে না: ওবায়দুল কাদের

ক্ষমতার জন্য বিএনপি দেশের স্বাধীনতা বিকিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করে না: ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ (বাসস): আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি মুক্তিযুদ্ধ ও দেশপ্রেমের মুখোশের আড়ালে ক্ষমতার জন্য দেশের স্বাধীনতা বিকিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করে না।
তিনি বলেন, যারা স্বাধীনতার পরাজিত শত্রুদের সাথে হাত মিলায় তারা কখনো সার্বভৌমত্বের রক্ষক হতে পারে না।
ওবায়দুল কাদের আজ সোমবার তাঁর বাসভবনে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।
বিএনপি নেতাদের সীমান্ত নিয়ে কথা বলা প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা ভুলে গেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দীর্ঘদিনের সীমান্ত সমস্যার সমাধান হয়েছে শেখ হাসিনার হাত ধরেই। বিএনপি মুখে ভারত বিরোধিতার ফেনা তুললেও ভারতের সাথে নতজানু অবস্থান নিয়েছিলো, যা তাদের সময়কালে দেশবাসী দেখেছে।
শেখ হাসিনার সাহসিকতা ও কূটনৈতিক দক্ষতায় বহু বছরের পুরনো ছিটমহল বিনিময় এবং সীমান্ত সমস্যা আন্তরিকতাপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছিল উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি তাদের শাসনামলে কোন সমস্যার সমাধানতো করতে পারেইনি বরং প্রতিবেশী দেশের সাথে অবিশ্বাস আর আস্থাহীনতার দেয়াল তুলেছে। শেখ হাসিনা সরকার দেশ ও জনগণের স্বার্থ সমুন্নত রেখে অবিশ্বাসের দেয়াল ভেঙে তৈরি করেছে সম্পর্কের সেতুবন্ধন।
তিনি বলেন, সীমান্ত সমস্যা জিইয়ে রেখে যারা রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করেছিলেন, যারা ভারত সফরে গিয়ে পানি সমস্যা নিয়ে কথা বলতে ভুলেই গিয়েছিলেন। ভারতে সরকার পরিবর্তনের পর তারা ভারতীয় দূতাবাসের বন্ধ দরজায় ফুল আর মিষ্টি নিয়ে অপেক্ষায় ছিলেন। এর চেয়ে নতজানু নীতি আর কী হতে পারে ?
সীমান্তে হত্যাকান্ডের বিষয়ে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারত সরকার কথা দিয়েছে সীমান্তে আর হত্যাকান্ড ঘটবে না। আশা করি ভারত সরকার এই বিষয়ে প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবে।
বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানার ৬৭তম জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের পক্ষ থেকে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রাণঢালা অভিনন্দন, শুভেচ্ছা ও শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, শেখ রেহানাও পর্দার অন্তরাল থেকে শক্তি ও সাহস যুগিয়ে যাচ্ছেন বড় বোন শেখ হাসিনাকে।
বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর এক কঠিন এবং সংগ্রামী জীবন-যাপন করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সরাসরি রাজনীতিতে না এলেও বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সার্বক্ষণিক অনুপ্রেরণা হয়ে আছেন এ নির্মোহ এবং জনহিতৈষী ব্যক্তিত্ব।
ওবায়দুল কাদের বলেন, সাদমাটা জীবন-যাপনে অভ্যস্থ শেখ রেহানা লন্ডনে মেট্রো ও বাসে যাতায়াত করেন। চাকুরি এবং পরিশ্রম করেই সন্তানদের মানুষ করেছেন শেখ রেহানা। শেখ রেহানার সন্তানরা আজ আন্তর্জাতিক মানের ক্যারিয়ার গঠন করেছেন। তার কন্যা টিউলিপ সিদ্দিক বর্তমানে বৃটিশ পার্লামেন্টে লেবার পার্টির সদস্য।
ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ রেহনার ত্যাগ, প্রেরণা এবং অন্তহীন সাপোর্টে দেশরতœ শেখ হাসিনা আজ সফল রাষ্ট্রনায়ক। রতœগর্ভা মা শেখ রেহানার বড় ছেলে রেদোয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি একটি আন্তর্জাতিক সংস্থায় কাজ করেন এবং কনিষ্ঠ কন্যা আজমিকা সিদ্দিক রুপতি লন্ডনে গ্লোবাল রিস্ক এনালাইজার হিসেবে কাজ করছেন।
বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার হৃদয়জুড়ে বাংলাদেশ আর বাংলাদেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর অদম্য স্বপ্ন উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আজ এ শুভক্ষণে আবারও বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানার প্রতি অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও শ্রদ্ধা।
ওবায়দুল কাদের শেখ রেহানার দীর্ঘায়ু এবং সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।

(সূত্র: বাসস)

খবরটি শেয়ার করুন..




© All rights reserved © 2020 onusondhan24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!