শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০৭ অপরাহ্ন

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বনানীতে লিলি চৌধুরীর দাফন

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বনানীতে লিলি চৌধুরীর দাফন

সর্বস্তরের জনগনের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বনানী কবরস্থানে আজ বাদ জোহর শহীদ মুনীর চৌধুরীর স্ত্রী নাট্যশিল্পী লিলি চৌধুরীর দাফন হবে।
লিলি চৌধুরীর ছেলে আসিফ মুনীর তন্যয় বাসস’কে জানান, আত্মীয়-স্বজনদের শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য আজ সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মরদেহ বনানীর বাসভবনে রাখা হবে।
এরপর সর্বস্তরের জনগনের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত লিলি চৌধুরীর মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে।
বাদ জোহর বনানী কবরস্থানে জানাজা শেষে তাকে ছেলে মিশুক মুনীরের কবরের পাশে দাফন করা হবে।
শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর স্ত্রী ও প্রয়াত মিশুক মুনীরের মা বিশিষ্ট নাট্যাভিনেত্রী লিলি চৌধুরী সোমবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় বনানীর বাসভবনে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বেতার, মঞ্চ ও টেলিভিশনের এক সময়ের ব্যস্ত এই অভিনেত্রীর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।
১৯২৮ সালের ৩১ অগাস্ট টাঙ্গাইলের জাঙ্গালিয়া গ্রামে নানা বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন লিলি চৌধুরী। ১৯৪৯ সালে শহীদ মুনীর চৌধুরীর সঙ্গে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।
একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের শেষ ভাগে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের এ দেশীয় দোসরদের সহায়তায় শিক্ষাবিদ, চিকিৎসক, সাংবাদিকসহ হাজারো বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করে। ১৪ ডিসেম্বর আলবদর বাহিনী এসে ধরে নিয়ে যায় মুনীর চৌধুরীকে। স্বামীর সঙ্গে সেই লিলির শেষ দেখা।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করা লিলিকে সদ্য স্বাধীন দেশে কঠিন সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। চাকরির পাশাপাশি অভিনয় করে যান বেতার, মঞ্চ আর টেলিভিশনে।
মুনীর চৌধুরীর শুরু করা টেনেসি উইলিয়ামসের ‘স্ট্রিট কার নেমড ডিজায়ার’ নাটকের অসমাপ্ত অনুবাদের কাজ লিলিই শেষ করেন।
স্বামীর সঙ্গে তার পত্রালাপ আর দুজনের লেখা ডায়েরির সঙ্কলন প্রকাশিত হয়েছে ‘দিনপঞ্জি-মনপঞ্জি-ডাকঘর’ শিরোনামে।
কাজের স্বীকৃতি হিসেবে নাট্যকার-নাট্যশিল্পী সংসদ, টেলিভিশন নাট্যশিল্পী নাট্যকার সংসদ ও বাংলাদেশ মানবাধিকার নাট্য পরিষদের সম্মাননা পেয়েছেন লিলি চৌধুরী।

খবরটি শেয়ার করুন..




© All rights reserved © 2020 onusondhan24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!